জেনে নিন জ্বরঠোসা হওয়ার কারণ এবং এর থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার উপায়

TotthoSeba, Tottho Seba, Tottho-Seba, Tottho_Seba, TotthoSheba, Tottho-Sheba, Tottho Sheba, Tottho_Sheba, তথ্যসেবা, তথ্য সেবা, তথ্য-সেবা, তথ্য_সেবা
আমাদের অনেকের ধারণা রাতে রাতে জ্বর আসলেই নাকি জ্বরঠোসা হয়। আসলে কতটুকু সত্যি তা আমরা আজকের লেখা থেকে জানতে চেষ্টা করবো। জ্বরঠোসা সত্যিকারে শুধুমাত্র জ্বরের কারণে হয়ে থাকে না। এর একটি বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা আছে। আজকে এটি সম্পর্কে আমরা জানাবো। ঠোটের কোণায় কিংবা বর্ডারে একগুচ্ছ ফুসকুড়ি। সাধারণভাবে আমরা একে বলে থাকি জ্বরঠোস, জ্বর-ঠোসা বা জ্বরঠুঁটো। এটাকে চিকিৎসা বিজ্ঞানের ভাষায় ফিভার ব্লিস্টার বলেন। প্রকাশ পাবার ২-৩ দিনের মধ্যে ব্লিস্টারে ব্যথা অনুভব হলে তখন একে বলা হয় কোল্ড সোর।

লক্ষণ: ঠোটের কোণে, বর্ডারে বা বর্ডারের আশেপাশে গুচ্ছ-বদ্ধ ফুসকুড়ি, জ্বর, ব্যথা, বমিভাব কিংবা বমি, মাথাব্যথা।

কেন হয়: সাধারণভাবে আমরা মনে করি জ্বর আসার লক্ষণ হিসেবে এই ফুসকুড়ি উঠেছে। আসলে তা নয়। ফিভার ব্লিস্টারের কারণ হচ্ছে HSV-1 ইনফেকশন। এই ইনফেকশনের  কারণেই জ্বর আসে! তবে হ্যাঁ,জ্বরের কারণেও ফিভার ব্লিস্টার হতে পারে যদি সেই জ্বর অন্যকোন ইনফেকশনের কারণে হয় যা শরীরের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাকে দুর্বল করে দেয়।

যাদের বেশি হয়: একটা বিশেষ গবেষণায় দেখা গেছে, প্রায় ৮০% মানুষই HSV-1 এ আক্রান্ত থাকেন। কিন্তু বেশিরভাগই সুপ্ত অবস্থায় থাকে এবং দশ বছর বয়সে প্রথম প্রকাশ পায়। প্রথমবার হওয়া ফিভার ব্লিস্টার সেরে যাবার পর HSV-1 স্নায়ুকোষে লুকিয়ে থাকে এবং জীবনে বারবার এর প্রকাশ ঘটে।

নিম্নোক্ত কারণগুলোর জন্য ফিভার ব্লিস্টার পুনরায় প্রকাশিত হতে পারে: কোন ইনফেকশন। মানসিক চাপ। মেয়েদের মাসিকের সময়। সূর্যের অতিবেগুনী রশ্মি। সাধারণভাবে ৭-১৪ দিন উপসর্গ বর্তমান থাকলেও ৮-১০ দিনের মধ্যে মধ্যে ফিভার ব্লিস্টার এমনিতেই ভালো হয়ে যায়। তবে প্রথম সপ্তাহে অ্যান্টি-ভাইরাল জেল লাগালে আরোগ্যে দ্রুত হয়। তবে ১৪ দিনের বেশি সময় ব্যথাযুক্ত ফিভার ব্লিস্টার থেকে গেলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। তবে খালি চোখে দেখেই ফিভার ব্লিস্টার সনাক্ত করা অনেকটাই সম্ভব। তবে ব্লিস্টারের ভিতরের তরল থেকে ডিরেক্ট ইমিউনোফ্লুরোসেন্স টেস্ট বা পলিমারেজ চেইন রিএ্যাকশনের মাধ্যমে ভাইরাস সনাক্ত করা যেতে পারে।

প্রতিরোধ:
১. ব্যবহৃত পানির গ্লাস, চামচ, লিপস্টিকসহ অন্যান্য কসমেটিক্স কারো শেয়ার না করা। ২. ছোটদের চুমু না দেয়া।
৩. ব্লিস্টার স্পর্শ করলে ভালো করে হাত ধুয়ে ফেলা।
৪. মানসিক চাপ মুক্ত থাকা।
৫. চুম্বন এবং ওরাল সেক্স থেকে বিরত থাকা।
৬. সানস্ক্রিন ক্রিম, লিপ-বাম ব্যবহার করা।
৭. পরিচ্ছন্ন পরিবেশ এবং পুষ্টিকর খাবার গ্রহণের মাধ্যমে স্বাস্থ্যকর জীবন যাপন।
© DMCA.com
Share:

বাংলাদেশ বিমান বাহিনীতে বিমান সেনা নিয়োগ

TotthoSeba, Tottho Seba, Tottho-Seba, Tottho_Seba, TotthoSheba, Tottho-Sheba, Tottho Sheba, Tottho_Sheba, তথ্যসেবা, তথ্য সেবা, তথ্য-সেবা, তথ্য_সেবা
শুধুমাত্র নন-টেকনিক্যাল ট্রেড
নির্বাচনি পরীক্ষা প্রতিদিন সকাল ০৮.০০ ঘটিকায় অনুষ্ঠিত হবে।

শিক্ষাগত যোগ্যতা:
এসএসসিতে যে কোন শাখায় ন্যুনতম জিপিএ-৩.৫/সমমান।

নির্বাচনি পরীক্ষার বিষয়সমূহ:
নন-টেকনিক্যাল ট্রেড আই কিউ, ইংরেজি, সাধারণ জ্ঞান এবং স্বাস্থ্যগত ও মৌখিক পরীক্ষা।

অন্যান্য যোগ্যতা
জাতীয়তা : বাংলাদেশী পুরুষ নাগরিক
বয়স : ১৬ হতে ২১ বছর (৩১ র্মাচ ২০১৯ তারিখে) বয়সের ক্ষেত্রে এফিডেবিট গ্রহণযোগ্যতা নয়।
বৈবাহিক অবস্থা : অবিবাহিত
উচ্চতা  : ন্যূনতম ১.৬৩ মি (৫ফুট ৪ইঞ্চি)
ওজন  : বয়স এবং উচ্চতা অনুযায়ী
বুকের মাপ : ন্যুনতম ৩০ ইঞ্চি, প্রসারণ: ২ ইঞ্জি।
চোখ : ৬/৬ এবং স্বাভাবিক দৃষ্টি সম্পন্ন (বর্ণাক্ষ গ্রহণযোগ্য নয়)

অযোগ্যতা:
১। সেনা/নৌ/বিমান বাহিনী অথবা অন্য কোন সরকারি চাকরি হতে বরখাস্ত/অপসারিত/সেচ্ছায় অবসর গ্রহণ।
২। যে কোন ফৌজদারী অপরাধের জন্য আদালত কর্তৃক দণ্ডপ্রাপ্ত।
৩। সরকারি চাকরিতে নিয়োগ নিষিদ্ধ ঘোষিত।

আবেদনপত্র সংগ্রহের নিয়মাবলী:
সেন্ট্রাল নন-পাবলিক ফান্ড, বিএএফ এর অনুকূলে ২০০/- টাকা, মূল্যের মেশিন রিডেবল ব্যাংক ড্রাফট/পে-অর্ডার (অফেরত যোগ্য)-এর বিনিময়ে প্রতি কার্য দিবসে ৮.০০ হতে ১৪ ঘটিকা পর্যন্ত (পরিক্ষার তারিখের ন্যুনতম ১ দিন পূর্বে) আবেদনপত্র সংগ্রহ করা হবে। ব্যাংক ড্রাফট অবশ্যই টিবিএল,
অগ্রণী, সোনালী, রূপালী ও জনতা ব্যাংক শাখায় পরিশোধযোগ্য হতে হবে।
বি.দ্র: ভাজঁ করা ব্যাংক ড্রাফট/পে-অর্ডার গ্রহণযোগ্য নয়।

আবেদনপত্র সংগ্রহের স্থানসমূহ:
*বাংলাদেশ বিমান বাহিনী সকল ঘাঁটি ও ইউনিটসমূহ।
* বাংলাদেশ বিমান বাহিনী তথ্য ও নির্বাচনী কেন্দ্র, পুরাতন বিমানবন্দর, তেজগাঁও, ঢাকা।

অনলাইনে  আবেদনরে নিয়মাবলী:
১।সরাসরি ওয়েবসাইট হতে অনলাইনে আবেদনপত্র পূরণ করে জমা দেয়া যাবে। অনলাইন পদ্ধতিতে www.joinbengladeshairforce.milbd ওয়েবসাইটে লগইন করে অথবা Join BAF  অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ-এ Apply Now ট্যাবে এ ক্লিক করে পরবর্তী নির্দেশনা অনুযায়ী আবেদনপত্র পূরণ করতে হবে।

২। আবেদনপত্র পূরণের সময় আবেদনকারীগণ আবেদপত্রের মূল্য বাবদ টি-ক্যাশ এর মাধ্যমে টাকা জমা দিতে পারবেন। এছাড়া গ্রামীণফোন, রবি, বাংলালিংক এবং এয়ারটেল গ্রাহকগণ ব্যক্তিগত বিকাশ ওয়ালেট এর মাধ্যমে বিএএফ বিকাশ ওয়ালেট-০১৭৬৯৯৯০২৮৯ অথবা ব্যক্তিগত রকেট ওয়ালেট বা ডিবিবিএল এজেন্ট পয়েন্ট থেকে ২৫২৫ ডিলার আইডি ব্যবহার করে আবেদনপত্রের মূল্য জমা দিতে পারবেন।

৩। আবেদনপত্রের নির্ধারিত অংশ অনলাইনের মাধ্যমে পূরণ করে প্রাথমিক লিখিত পরীক্ষার সময় পরীক্ষা কেন্দ্রে জমা দিতে হবে।

ক. অসম্পূর্ন আবেদনপত্র বাতিল বলে গণ্য হবে।
খ. অনলাইন আবেদনপত্র সদ্য তোলা রঙিন  ছবির মাধ্যমে সম্পন্ন করতে হবে।

আবেদনপত্র জমাদানের নিয়মাবলী:
প্রার্থীদের স্বহস্থে আবেদনপত্র সঠিকভাবে পূরণ করত: পরীক্ষার সময় নিম্নবর্ণিত সনদসহ পরিক্ষা কেন্দ্রে উপস্থিত থাকতে হবে।

১। সকল শিক্ষাগত যোগ্যতার সাময়িক সনদ, প্রশংসাপত্র এবং নম্বরপত্রসমূহের সত্যায়িত ফটোকপি।

২। নাগরিকত্ব, চারিত্রিক সনদ, বৈবাহিক অবস্থা ও স্থায়ী ঠিকানার সনদ জমা দিতে হবে। উক্ত সনদ স্ব স্ব ইউনিয়ন পরিষদ/ মিউনিসিপ্যাল/ চেয়ারম্যান/ওয়ার্ড কমিশনার অথবা প্রথম শ্রেণির গেজেটেড  কর্মকর্তার নিকট হতে আনতে হবে। উক্ত সনদের সাথে সনাক্তকারীর মোবাইল নাম্বার সংযুক্ত করতে হবে।

৩। সম্প্রতি তোলা পাসপোর্ট আকারের ১২ কপি সত্যায়িত ছবি (অবশ্যই ল্যাব প্রিন্ট ও কালারসহ হতে হবে।

৪। বর্তমান অথবা সর্বশেষ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান কর্তৃক প্রদত্ত চারিত্রিক সনদ।

৫। চাকরিতে প্রার্থীদের ক্ষেত্রে স্ব স্ব কর্মস্থল/ প্রতিষ্ঠানের প্রধানের নিকট হতে প্রার্থীতার জন্য অনুমতিপত্র।

৬। স্থায়ী ঠিকানার প্রমাণ স্বরূপ জন্ম নিবন্ধন/জাতীয় পরিচয়পত্রের সত্যায়িত ফটোকপি।

৭। জেলা বা বিভাগীয় পর্যায়ে খেলাধুলার কোন কৃতিত্বের সনদ থাকলে তার সত্যায়িত ফটোকপি।

৮। মুক্তিযুদ্ধার সন্তান/নাতি/নাতনীর জন্য মুক্তিযুদ্ধার সনদের সত্যায়িত ফটোকপি সরকারি গেজেট ও বিধি মোতাবেক মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রণালয় হতে প্রাপ্ত হয়ে জমা দিতে হবে।

৯। দাবীকৃত সমমানের শিক্ষাগত যোগ্যতার বিষয়ে সংশ্লিষ্ট ইকুইভ্যালেন্স কমিটি কর্তৃক প্রদত্ত ইকুইভ্যালেন্স সনদের সত্যায়িত ফটোকপি।

১০। ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট জেলা প্রশাসক কর্তৃক প্রদত্ত সনদের সত্যায়িত কপি।

১১। বর্তমান ঠিকানাসহ ৯ইঞ্চ আকারের একটি ফেরত খাম।

প্রথমিক প্রশিক্ষণ: ৩৬ সপ্তাহ

প্রশিক্ষণকালীন মাসিক বেতন:৯.০০০.০০ টাকা মাসিক (নির্ধারিত)।

প্রত্যেক প্রার্থীকে তার নিজ জেলার জন্য নির্ধারিত ভর্তি পরিক্ষার দিন সকাল ০৮.০০ ঘটিকায় সঠিক ভাবে পূরণকৃত আবেদনপত্র (স্ব হস্তে/অনলাইনে) ও উপরে উল্লেখিত প্রয়োজনীয় সনদসহ নির্ধারিত পরিক্ষাকেন্দ্রে হাজির হতে হবে।

সতর্কবাণী
বাংলাদেশ বিমান বাহিনীতে কমিশন অফিসার/বিমান সেনা/এমওডিসি পদে কেবলমাত্র সংবাদপত্রে এবং বিমান বাহিনী ওয়েবসাইটে প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে  উল্লেখিত তারিখ ও স্থান অনুযায়ী ইউনিফরম পরিহিত রিক্রুটিং টিমের মাধ্যমে পরিক্ষা গ্রহণ করা হয়। কেউ আর্থিক লেনদেনসহ কোন প্রকার প্রতারণা করার চেষ্টা করলে তাকে নিকটস্থ আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার নিকট সোপর্দ করুন। ভূয়া ঠিকানা ও সনদপত্র অথবা ভূল তথ্য প্রদানের মাধ্যমে বিমান বাহিনীতে ভর্তির তথ্য উদঘাটিত হলে চাকরির যে কোন পর্যায়ে আইনানুগ ব্যবস্থা (বরখাস্তকরনসহ) গ্রহণ করা হবে।

ভর্তির ব্যাপারে কোন অসৎ ব্যক্তির সাথে যোগাযোগ করে প্রতারিত হবেন না।

বিশেষ সুযোগ সুবিধা: উচ্চতর শিক্ষা, যোগ্যতার ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রে বিদেশে প্রশিক্ষণ, ইউএন মিশন, ভর্তুকি মূল্য রেশন, বাসস্থান চিকিতসা সহ সন্তানের বিএএফ শাহীন কলেজ, তে অধ্যায়নের সুযোগ।

রিক্রুটমেন্ট পরিধপ্তর:
বাংলাদেশ বিমান বাহিনী সদর দপ্তর, ঢাকা ক্যান্টনমেন্ট
যোগাযোগ করুন:
বাংলাদেশ বিমান বাহিনী তথ্য ও নির্বাচনী কেন্দ্র
পুরান বিমানবন্দর, তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫
ফোন: ০২৫৫৯০০০০  সম্প্রসারণ:   ৫৬৯৬, ০১৭৬৯৯৯০০১
(সকাল ০৯টা, দুপুর ০২টা)

বিভাগ ও জেলাভিত্তিক পরীক্ষার স্থান এবং তারিখ
বিভাগ
তারিখ
নির্ধারিত জেলা
ঢাকা
১১ ডিসেম্বর ২০১৮
ঢাকা
মুন্সীগঞ্জ
১২ ডিসেম্বর ২০১৮
টাঙ্গাইল
নারায়নগঞ্জ
১৩ ডিসেম্বর ২০১৮
নরসিংদী
গাজীপুর
মাদারীপুর
১৭ ডিসেম্বর ২০১৮
গোপালগঞ্জ
মানিকগঞ্জ
কিশোরগঞ্জ
ময়মনসিংহ
১৮ ডিসেম্বর ২০১৮
ময়মনসিংহ
চট্রগ্রাম
১৯ ডিসেম্বর ২০১৮
চট্রগ্রাম
ব্রাহ্মনবাড়িয়া
২০ ডিসেম্বর ২০১৮
লক্ষীপুর
চাঁদপুর
ফেনী
২৩ ডিসেম্বর ২০১৮
নোয়াখালী
কুমিল্লা
কক্সবাজার
রাজশাহী
২৪ ডিসেম্বর
বগুড়া
২৬ ডিসেম্বর
নওগাঁ
পাবনা
খুলনা
২৭ ডিসেম্বর
যশোর
ঝিনাইদহ
১ জানুয়ারী ২০১৯
কুষ্টয়িা
বাগেরহাট
বরিশাল
৩ জানুয়ারী ২০১৯
বরিশাল
ভোলা
৬ জানুয়ারী ২০১৯
পিরোজপুর
পটুয়াখালী
সিলেট
৮ জানুয়ারী ২০১৯
সিলেট
মৌলভীবাজার
১০ জানুয়ারী ২০১৯
হবিগঞ্জ
সুনামগঞ্জ

১৩ জানুয়ারী ২০১৯
রংপুর
কুড়িগ্রাম
রংপুর
১৫ জানুয়ারী ২০১৯
গাইবান্ধা
ঠাকুরগাঁও
পচ্ঞগড়

নীলফারমারী

১৭জানুয়ারী ২০১৯
দিনাজপুর
লালমনিরহাট

বি.দ্র. পরীক্ষাকেন্দ্রে সকল প্রকার ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস (মোবাইল, ক্যালকুলেটর ইত্যাদি)
এবং ব্যাগ বহন করা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।

বিস্তারিত তথ্য ও অনলাইনে আবেদন করতে লগইন করুন। www.joinbangladeshairforce.mil.bd
Share:

নির্বাচনী তথ্য কণিকা || উপজেলা পরিষদ নির্বাচন-২০১৯

TotthoSeba, Tottho Seba, Tottho-Seba, Tottho_Seba, TotthoSheba, Tottho-Sheba, Tottho Sheba, Tottho_Sheba, তথ্যসেবা, তথ্য সেবা, তথ্য-সেবা, তথ্য_সেবা
নির্বাচনে রাজনৈতিক দল ও প্রার্থীর আচরণ বিধিমালা, ২০০৮ এর বিধি ৪ অনুযায়ী সার্কিট হাউজ, ডাক বাংলো ইত্যাদি ব্যবহার-
(১) সরকারি ডাক বাংলো, রেস্ট হাউজ, সার্কিট হাউজ বা কোন সরকারি কার্যালয়কে কোন দল বা প্রার্থীর পক্ষে বা বিপক্ষে প্রচারের স্থান হিসাবে ব্যবহার করা যাইবে না।

(২) কোন প্রার্থী কিংবা তাহার পক্ষ হইতে অন্য কোন ব্যক্তিকে সরকারি ডাক বাংলো, রেস্ট হাউজ ও সার্কিট হাউজ ব্যবহারের অনুমতি প্রদানের ক্ষেত্রে প্রথম আবেদনের ভিত্তিতে ব্যবহার সংক্রান্ত নীতিমালা এবং Warrant of Precedence ও প্রাধিকার অনুযায়ী সমঅধিকার প্রদান করিতে হইবে।

(৩) উপবিধি (২) এ যাহা কিছুই থাকুক না কেন, নির্বাচন পরিচালনার কাজে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণ সরকারি ডাক বাংলো, রেস্ট হাউজ ও সার্কিট হাউজ ব্যবহারের অগ্রাধিকার পাইবেন।

উক্ত আচরণ বিধির ৬ বিধি অনুযায়ী সভা সমিতি অনুষ্ঠান সংক্রান্ত বাধা নিষেধ-
(১) কোন নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল কিংবা উহার মনোনীত প্রার্থী বা স্বতন্ত্র প্রার্থী কিংবা তাহাদের পক্ষে অন্য কোন ব্যক্তি-

(ক) প্রচারণার ক্ষেত্রে সমান অধিকার পাইবেন তবে প্রতিপক্ষের সভা, শোভাযাত্রা এবং অন্যান্য প্রচারাভিযান পন্ড বা উহাতে বাধা প্রদান বা ভীতি সঞ্চারমূলক কিছু করিতে পারিবে না

(খ) সভার দিন, সময় ও স্থান সম্পর্কে যথাযথ কর্তৃপক্ষের নিকট হইতে লিখিত অনুমতি গ্রহণ করিবে তবে এইরূপ অনুমতি লিখিত আবেদন প্রাপ্তির সময়ের ক্রমানুসারে প্রদান করিতে হইবে।

(গ) সভা করিতে চাহিলে প্রস্তাবিত সভার কমপক্ষে ২৪ ঘন্টা পূর্বে তাহার স্থান এবং সময় সম্পর্কে স্থানীয় পুলিশ কর্তৃপক্ষকে অবহিত করিতে হইবে, যাহাতে ঐ স্থানে চলাচল ও আইন শৃঙ্খলা রক্ষার জন্য পুলিশ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করিতে পারে।

(ঘ) জনগণের চলাচল বিঘ্ন সৃষ্টি করিতে পারে এমন কোন সড়কে জনসভা কিংবা পথ সভা করিতে পারিবেন না এবং তাহাদের পক্ষে কোন ব্যক্তিও অনুরূপভাবে জনসভা বা পথসভা ইত্যাদি করিতে পারিবে না

(ঙ) কোন সভা অনুষ্ঠানে বাধাদানকারী বা অন্য কোনভাবে গোলযোগ সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সভার আয়োজকরা পুলিশের শনাণাপন্ন হইবেন এবং এই ধরণের ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে তাহারা নিজেরা ব্যবস্থা গ্রহণ করিতে পারিবে না

উক্ত আচরণ বিধির ১৮ বিধি অনুযায়ী এ বিধান লঙ্ঘন শাস্তিযোগ্য অপরাধ
(১) কোন প্রার্থী বা তাহার পক্ষে অন্য কোন ব্যক্তি নির্বাচন পূর্ব সময়ে এই বিধিমালার কোন বিধান লঙ্ঘন করিলে অনধিক ছয় মাসের কারাদন্ড অথবা অনধিক পঞ্চাশ হাজার টাকা অর্থদন্ডে অথবা উভয়েদন্ডে দন্ডনীয় হইবেন

(২) কোন নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল নির্বাচন পূর্ব সময়ে এই বিধিমালার কোন বিধান লঙ্ঘন করিলে অনধিক পঞ্চাশ হাজার টাকা অর্থদন্ডে দন্ডনীয় হইবে

ভোটগ্রহণের জন্য নির্ধারিত দিনের ৩ সপ্তাহ পূর্বে কোন প্রকার নির্বাচনী প্রচারণা করা যাবে না

নির্বাচনী আচরণবিধি মেনে চলুন
সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচনে সহায়তা করুন

নির্বাচনী আচরণবিধির লঙ্ঘন শাস্তিযোগ্য অপরাধ

বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন
Share:

জনপ্রিয় পোস্টগুলি